প্রশাসনিক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে খোয়াই সফরে মুখ্যমন্ত্রী

cmগোপাল সিং, খোয়াই, ১৩ জুলাই ।। বুধবার সকালে প্রশাসনিক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে যোগ দিতে খোয়াই পৌছলেন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার। সঙ্গে ছিলেন মন্ত্রীসভার অন্যান্য সদস্যরাও। প্রথমেই মুখ্যমন্ত্রী পৌছান খোয়াই ডাক বাংলোতে। মুখ্যমন্ত্রীর খোয়াই সফরকে কেন্দ্র করে বুধবার খোয়াই শহর ছিল সাজো সাজো রব। রাস্তা-ঘাট যেমন ঝকঝক করছিল, তেমনি বিদ্যুৎ পরিষেবা একবারের জন্যও বিঘ্নিত হয়নি। এমনকি পানীয় জল সরবরাহ হয় নিয়ম মেনে দিনে দু’বার। একইভাবে মুখ্যমন্ত্রীর খোয়াই সফরকে কেন্দ্র করে ট্রাফিক ব্যবস্থা ছিল চোখে পড়ার মতো। অথচ দীর্ঘদিন যাবত খোয়াইতে পানীয় জল, বিদ্যুৎ ও রাস্তা-ঘাটের সমস্যা নিয়ে নাজেহাল খোয়াইবাসী। তেমনি ট্রাফিক ব্যবস্থার ভঙুর অবস্থার মধ্যে নিত্যদিনই জনসাধারনকে ভোগান্তির স্বীকার হতে হয়। তবে বুধবার দিনটি ছিল ঝা-চকচকে। তাই খোয়াইবাসীর দাবি মুখ্যমন্ত্রী যেন বারবার খোয়াই সফর করেন। যদিও একই দিনে দু-দুটি পর্যালোচনা সভা করার পর খোয়াইয়ে পানীয় জল ও রাস্তা-ঘাটের দূরাবস্থা দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রীও। এদিকে বুধবার একই দিনে দু-দু’টি পর্যালোচনা সভা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার। মুখ্যমন্ত্রীর পৌরহিত্যে দিনের প্রথম সভাটি হয় খোয়াই জেলা শাসকের কার্যালয়ে। খোয়াই জেলা পুলিশ প্রশাসনের সাথে গুরুত্ব বৈঠকে সামিল হন রাজ্য পুলিশের মহানির্দেশক কে-নাগরাজ, রাজ্যের মুখ্য সচীব যশপাল সিং সহ রাজ্য স্তরের আরক্ষা বিভাগের বিভিন্ন স্তরের আধিকারিকরা। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন উপজাতি কল্যান মন্ত্রী অঘোর দেববর্মা, রাজ্যের সমবায় মন্ত্রী খগেন্দ্র জমাতিয়া সহ অন্যান্য উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। খোয়াই জেলার আইন শৃঙ্খলা ও প্রশাসনিক পর্যালোচনা সভায় খোয়াই জেলার সার্বিক পরিস্থিতির বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি প্রতিটি থানায় মামলার পরিসংখ্যান এবং কি ধরনের মামলা হচ্ছে তারও খোঁজ খবর নেন মুখ্যমন্ত্রী।  খোয়াই জেলায় অধিক মাত্রায় মহিলা সংক্রান্ত মামলার পরিসংখ্যান দেখে মুখ্যমন্ত্রী আশ্চর্য্য হয়েছেন বলে জানা যায়।  মহিলা সংক্রান্ত অপরাধ বৃদ্ধির কারন ও তার বিচার বিশ্লেষন করে এই ধরনের অপরাধ কমানোর কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার। একই সাথে জেলার পুলিশের পরিকাঠামো উন্নয়নে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে এবং মুখ্যমন্ত্রী।  সার্বিকভাবে মানুষকে ‘প্রয়াসের’মাধ্যমে সচেতন করে সামাজিক অপরাধ কমানোর উপর গুরুত্ব আরোপ করতে পুলিশের ডিজিকে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।  এছাড়া জুয়ার রমরমা বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহনের কথাও বলেছেন রাজ্যের মুখ্য মন্ত্রী মানিক সরকার। সভায় খোয়াই জেলার প্রতিটি থানার পরিস্থিতি সম্পর্কে অবগত হন মুখ্যমন্ত্রী। সীমান্ত সমস্যা ও অপরাধ যাতে না ঘটে তার প্রতি নজর দিতেও বলেন।  অপরদিকে দিনের দ্বিতীয় পর্যালোচনা সভাটি হয় জেলার অন্যান্য দপ্তরগুলির উচ্চপদস্থ ও পদস্থ আধিকারিকদের নিয়ে। মধ্যান্ন ভোজের পর বিকেল তিনটায় শুরু হয় এই সভা। এই সভায় জেলা স্তরের সমস্ত আধিকারিক, দুই মহকুমা শাসকরা উপস্থিত ছিলেন। এই সভায় খোয়াই জেলার সার্বিক কাজকর্মের পর্যালোচনা হয়। বিশেষ করে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, পূর্ত এবং ব্লক স্তরের কাজ কর্মের খোজ খবর নেন মুখ্যমন্ত্রী। পর্যালোচনা সভার শেষে মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার খোয়াই জেলা শাসক ও পুলিশ সুপারের অফিস নির্মানের স্থানটি পরিদর্শন করেন।  এছাড়া একই দিনে পরিদর্শন করলেন খোয়াইয়ের অত্যাধুনিক নির্মিয়মান কালচার‌্যাল কমপ্লেক্সেটিও।  তবে রাস্তার খুব কাছাকাছি কমপ্লেক্সটি তৈরী হওয়ায় এর সামনে পর্যাপ্ত জায়গার অভাব রয়েছে বলে এবং কমপ্লেক্সের ভেতরে গ্রীনরুমটিও ছোট আকারে হয়েছে বলে সেটি বড় আকারে নির্মানের কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এছাড়াও খোয়াই সরকারী দ্বাদশ শ্রেনী বিদ্যালয়ের মাঠটিকে মিনি স্টেডিয়ামে রুপান্তর করার উদ্যোগ নেবার জন্য পূর্ত্ত দপ্তরের আধিকারিকদের বললেন মুখ্যমন্ত্রী। উল্লেখ্য মুখ্যমন্ত্রীর এই পর্যালোচনা সভাটি বৈঠকের পূর্ববর্তী দিন ধার্য্য ছিল সাত জুলাই।  কিন্তু ঐদিন ঈদের সরকারী ছুটি ঘোষনা হওয়ায় মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক পর্যালোচনা সভাটি পিছিয়ে ১৩ জুলাই করা হয়।  তবে বুধবার মুখ্যমন্ত্রীর খোয়াই সফরকে কেন্দ্র করে শহরের উপর ট্রাফিক ব্যবস্থা ছিল আকর্ষনের কেন্দ্র বিন্দু। কারন অন্যান্য দিনগুলিতে খোয়াইবাসী পরিপাটি ট্রাফিকি ব্যবস্থার অভাবে ভীতিগ্রস্থ থাকেন। তাই খোয়াইবাসীর প্রত্যাশা বারবার যেন মুখ্যমন্ত্রী খোয়াই সফর করেন।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*