মুম্বই হামলার তদন্ত শেষ করা নিয়ে পাকিস্তানকে চিঠি পাঠিয়েও সাড়া মেলেনি

mumbaiজাতীয় ডেস্ক ।। ২০০৮-এর মুম্বই সন্ত্রাসবাদী হামলার বিচার দ্রুত শেষ করে ফেলার ব্যাপারে বেশ কিছু পন্থা, পদ্ধতির উল্লেখ করে পাকিস্তানের বিদেশসচিবকে গত ৯ সেপ্টেম্বর চিঠি পাঠিয়েছেন বিদেশসচিব এস জয়শঙ্কর। ইসলামাবাদে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার সেটি হাতে হাতে তুলে দেন পাক বিদেশসচিবকে। কিন্তু আজও সেই চিঠির জবাব আসেনি বলে জানিয়েছেন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র বিকাশ স্বরূপ। তিনি বলেন, পাকিস্তান মুম্বই হানায় জড়িত অপরাধীদের সাজা দিতে দায়বদ্ধ, আন্তরিক হলে বিদেশসচিবের পাঠানো সুপারিশগুলি বিচার করে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। কারণ ওই নাশকতার ছক তৈরি হয়েছিল পাকিস্তানে, হামলা চালিয়েছিল পাক নাগরিকরা। তার যাবতীয় তথ্যপ্রমাণ আছে পাকিস্তানেই। নজিরবিহীন সন্ত্রাসবাদী হামলার আট বছর পূর্ণ হতে চলল, অথচ পাকিস্তানে মামলার বিচার শম্বুক গতিতে এগচ্ছে বলে উল্লেখ করে বিকাশ স্বরূপ বলেন, হামলায় জড়িতদের সাজা দিতে দেরি হচ্ছে বলেই বিদেশ সচিব সম্প্রতি পাক বিদেশসচিবকে চিঠি পাঠিয়ে বেশ কিছু পদ্ধতির সুপারিশ করেন যার মাধ্যমে আইনি পথে দ্রুত তদন্ত, বিচার এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়। সন্ত্রাসবাদের রাশ টেনে ধরাই সরকারের অগ্রাধিকার, মুম্বই হানা মামলার দ্রুত পরিসমাপ্তি চায় সরকার বলে জানান স্বরূপ। তিনি বলেন, কী করে সঠিক আইনি পথে সেটা করা সম্ভব, সে ব্যাপারে সুপারিশ দিতে তৈরি আমরা। ভারত কি পাকিস্তানের সাড়া পেয়েছে, প্রশ্ন করা হলে তাঁর জবাব, না! ঘটনাচক্রে, ২০০৮-এর হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া এক প্রাক্তন লস্কর-ই-তৈবা সদস্যকে গত ৯ সেপ্টেম্বর রেহাই দেওয়া হয়েছে। মুম্বই হামলার আগে সহ-অভিযুক্ত শাহিদ জামিল রিয়াজকে ৩ কোটি ৯৮ লক্ষ টাকার ব্যবস্থা করে দেওয়ার অভিযোগে ধৃত সুফিয়ান জাফর নামে ওই লস্কর জঙ্গির বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগই প্রমাণিত হয়নি বলে জানিয়েছে পাকিস্তানের ফেডারেল তদন্ত এজেন্সি। মুম্বই হানা মামলায় ঘোষিত অপরাধী তকমা দেওয়া হয় তাকে। তারপরই গা ঢাকা দেয় সে। গত মাসেই খাইবার-পাখতুনখাওয়ার ডেরা থেকে গ্রেফতার হয় সে।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*