রাত জাগতে জাগতে ৫০০০ বছরের মধ্যে পেঁচায় পরিণত হবে মানুষ, বলছে সমীক্ষা

485632_866468486720207_8308831426245943938_nআন্তর্জাতিক ডেস্ক ।। যদি এভলিউশন টুডে নামক সায়েন্স জার্নালে প্রকাশিত খবর সত্যি হয়, তবে আগামী ৫০০০ বছরের মধ্যে মানুষ পরিণত হবে পেঁচায়। গবেষনা বলছে নতুন প্রজন্মে মানুষের জীবনযাত্রায় রাত্রি জাগরণের অভ্যেস যেভাবে বেড়েছে তাতে মানুষ নিশাচরে পরিণত হচ্ছে ক্রমশ।
বৈজ্ঞানিক মার্ক ডারউইন জানালেন, “আমাদের অভ্যেস ও প্রয়োজন যেভাবে বদেলেছে সেই তার প্রভাবেই ধীরে ধীরে এপ থেকে মানুষে বিবর্তন ঘটেছে। আর এখন সময় মানুষ থেকে নিশাচর প্রাণীতে বিবর্তনের। আমাদের মধ্যে যারা ইন্টারনেট, স্মার্টফোন, ল্যাপটপ ব্যবহার করেন তাদের বেশিরভাগেরই রাত ৩টে থেকে ৪টে নাগাদ ঘুমোতে যাওয়ার অভ্যেস। অর্থাত্ আমরা ধীরে ধীরে নিশাচর প্রাণীতে পরিণত হচ্ছি।”
মার্ক ডারউইন ও তাঁর দল জানালেন যাদের ওপর সমীক্ষা চালানো হয়েছিল তারা অনেকেই স্বীকার করেছেন ঘুমোতে যাওয়ার আগের মুহূর্ত পর্যন্ত ফোন ব্যবহার করেন তারা। গবেষনা বলছে আগামী ২০০ বছরের মধ্যে বিশ্বের জনসংখ্যার সিংহভাগের কাছে পৌঁছে যাবে উন্নততর প্রযুক্তি। যার ফলে দিনে কাজ করার ক্ষমতা ধীরে ধীরে হারাবে মানুষ। সারারাত স্বচ্ছন্দে ইন্টারনেট ব্যবহার করে কাটাবেন তারা। আর ৩০০০ সালের মধ্যে মানুষের শরীরে হবে পালকের আবির্ভাব। তবে পেঁচার মতো চোখ মানুষের থাকবে না যার দ্বারা রাতেও দেখা যায়। তার কারণ আমরা সাধারণত রাত্রিবেলা মোবাইল বা ল্যাপটপের দিকে তাকাতেই অভ্যস্ত। ফলে রাতের অন্ধকারে দেখার কোনও ক্ষমতাই তৈরি হবে না। তাই দ্বিতীয় শ্রেণির পেঁচায় পরিণত হবে মানুষ। আর পেঁচা সমাজে মিলবে না সেই সম্মানও।
তবে এই বিষয়ে প্রথম শ্রেণির পেঁচায় পরিণত হওয়ার উপায় বাতলে দিয়েছেন মার্ক। কাজেই ফোন ঘাঁটাঘাঁটি না করে রাতে অলস ভাবে বসে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন মার্ক । তাঁর ধারণা এই পদ্ধতিতেই প্রথম শ্রেণির পেঁচায় পরিণত হবে মানুষ ।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*