‘এক শাম শাহিদও কে নাম’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে শহীদ পরিবারদের সম্মাননা প্রদান যুব বিকাশ কেন্দ্রের

vআপডেট প্রতিনিধি, আগরতলা, ২০ আগস্ট ৷৷ রাজ্যের বেসরকারি সামাজিক সংস্থা যুব বিকাশ কেন্দ্র প্রতিনিয়ত নানা সামাজিক কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে। ৭৩তম স্বাধীনতা দিবসকে সামনে রেখে ১৫ই আগস্ট ২০১৯আগরতলার দশরথ দেব স্মৃতি ভবনের অডিটরিয়ামে রাজ্যের অন্যতম সামাজিক সংস্থা যুব বিকাশ কেন্দ্র এবং ন্যাশনাল ইন্টিগ্রেটেড ফোরাম অফ আর্টিস্ট এন্ড অ্যাক্টিভিস্ট (নিফা)-এর যৌথ ব্যবস্থাপনায় “এক শাম শাহিদও কে নাম” শীর্ষক এক শ্রদ্ধাঞ্জলি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন রাজ্যের উপজাতি কল্যাণ এবং বন দপ্তরের মন্ত্রী মেবার কুমার জমাতিয়া। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মজলিশপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক সুশান্ত চৌধুরী, ট্রাইবেল রিসার্চ এবং কালচারাল ইনস্টিটিউটের ডাইরেক্টর ধনঞ্জয় দেববর্মা এবং নিফার রাজ্য পেট্রন গৌতম দাস প্রমূখ।অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী ভাষণে সংস্থার সভাপতি দেবাশীষ মজুমদার জানান, রাজ্যে বীর শহীদদের পরিবারকে সম্মাননা জানানোর উদ্দেশ্যে প্রতিবছর এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে ।তাছাড়া রাজ্যের যুব সমাজ সেবী এবং সাংস্কৃতিক প্রতিভা সম্পন্ন ব্যক্তিদের স্বাধীনতা দিবসের এই দিনে সংগঠনের তরফ থেকে উক্ত অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সম্মাননা জানানো হয়। অনুষ্ঠানের উদ্বোধক শ্রী জমাতিয়া তার ভাষণে এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য আয়োজিত সংস্থাকে অন্তরের অন্তস্থল থেকে শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন।উপস্থিত বিধায়ক সুশান্ত চৌধুরী বলেন, সীমিত ক্ষমতার মধ্যেও যুব বিকাশ কেন্দ্র সারাবছর রাজ্যে বিভিন্ন ঐতিহাসিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে যাচ্ছে এবং “এক শাম শহীদও কে নাম” শীর্ষক অনুষ্ঠানটি সত্যিই প্রশংসনীয়। উক্ত অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রাজ্যের ৬টি শহীদ পরিবারের সদস্যদের সম্মাননা জানানো হয় এবং ১০ জন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিভা সম্পন্ন ব্যক্তিকে সম্মাননা জানানো হয়।
ট্রাইবেল রিসার্চ এবং কালচারাল ইনস্টিটিউটের ডাইরেক্টর ধনঞ্জয় দেববর্মা বলেন, যাদের বলিদানের ফলে রাজ্যবাসী বা দেশবাসী নিশ্চিন্তে রাত্রি নিদ্রা নিতে পারছেন সেই সব বীর পুত্রদের জন্য এরকম অনুষ্ঠানের আয়োজন সত্যিই প্রশংসনীয়। এদিন রাজ্যের বিভিন্ন সুনাম সম্পন্ন সাংস্কৃতিক প্রতিনিধিদের দ্বারা এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের সমাপ্তিতে সংগঠনের কেন্দ্রীয় প্রভারি পিঙ্কু দাস সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। অনুষ্ঠানকে সফল করার জন্য উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সদস্য দেবাশীষ দেববর্মা, সুকান্ত দেবনাথ, প্রতিমা দেববর্মা, শীমা শর্মা, তন্ময় চক্রবর্তী, অনুপম দেবনাথ, প্রণব দেব, বিরজু দেববর্মা, তিলোত্তমা দেববর্মা, দীপঙ্কর দেবনাথ, জয়শ্রী মহাজন প্রমূখ।
FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*