কালবৈশাখী ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে দাঁড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী, বাড়ালেন সাহায্যের হাত

91975310_2400840616684266_2065778552392908800_oআপডেট প্রতিনিধি, আগরতলা, ০৪ এপ্রিল ৷। কালবৈশাখীর ঝড়ে বিপদগ্রস্তদের পাশে গিয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই দাঁড়ালেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। করোনা সংক্রান্ত জটিলতা হোক অথবা যেকোনো ধরনের সমস্যা, প্রত্যন্ত এলাকার মানুষ যদি কোনো ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হন, তবে শান্ত হয়ে যে মুখ্যমন্ত্রী বাড়িতে বসে থাকেন না, তার প্রমাণ আজও রাখলেন তিনি। ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ালেন এবং প্রশাসনিক যাবতীয় সাহায্য করার আশ্বাস প্রদান করলেন।
শুক্রবার সন্ধ্যায় মরসুমের প্রথম কালবৈশাখী ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয় রাজ্যের পশ্চিম ও সিপাহীজলা জেলায়। রাবার বাগান, কৃষি জমি এবং বাড়িঘরে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। এই খবর শোনার পর শনিবার সকালেই মুখ্যমন্ত্রী ছুটে যান সেই ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে। সেখানে গিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলেন, তাদের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিজের চোখে দেখেন।
মুখ্যমন্ত্রী গোলাঘাটি ও তার পার্শবর্তী অঞ্চল ঘুরে দেখেন। বিশেষ করে গ্রাম পাহাড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ান। ঝড়-বৃষ্টিতে যে ক্ষতি হয়েছে তাদের মনের কথা শোনেন। মুখ্যমন্ত্রী তাদের ভরসা দিয়ে আসেন যে, যেকোনো দুর্যোগে তিনি পাশে থাকবেন। এদিন অনেকের হাতে সরকারি সাহায্য স্বরূপ চেক তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব।
পরে আগরতলায় এসে কালবৈশাখীর ঝড়ে দুর্গতদের পাশে দাঁড়ানোর বিষয়ে সরকারি সিদ্ধান্তের কথা তিনি জানান। মুখ্যমন্ত্রী বলেন মূলত পশ্চিম ও সিপাহীজলা জেলায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। পশ্চিম ত্রিপুরা জেলায় ১৭২টি ঘর আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তাদের প্রত্যেকের ব্যাংক একাউন্টে তিনদিনের মধ্যে ৫,২০০ টাকা করে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। এছাড়া ৭০ হেক্টর কৃষি জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মোট ১২৪টি পরিবারের এই ক্ষয়ক্ষতি মিটিয়ে দেওয়ার প্রশ্নে সরকারের পক্ষ থেকে কানি প্রতি ১,১০০ টাকা করে প্রত্যেকের একাউন্টে তিনদিনের মধ্যে দিয়ে দেয়া হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।
মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব জানান, সিপাহীজলা জেলাতে ৭৩টি বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এরমধ্যে ৩৪টি বাড়ি সম্পূর্ণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাদের ৯৫ হাজার ১০০ টাকা করে দেয়া হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। ইতিমধ্যেই তাদের হাতে ৫,২০০ টাকা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ঐ জেলাতে ৩৯টি বাড়ি আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাদের ৫ হাজার ২০০ টাকা করে ক্ষতিপূরণ তিন দিনের মধ্যে দিয়ে দেওয়া হবে বলে মুখ্যমন্ত্রী জানান।
মুখ্যমন্ত্রী বলেন, স্টেট ডিজাস্টার রেসপন্স ফান্ড থেকে আর্থিক সাহায্য প্রদান করা হবে। সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের তা তদারকি করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিকে ঝড়ে বিধ্বস্ত পরিবারগুলোর পাশে মুখ্যমন্ত্রীর দাঁড়ানোর ফলে তাদের মধ্যে স্বস্তি বিরাজ করে।
FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>