মহারানীপুর এডিসি এলাকায় গরু চোরের তান্ডব, এলাকাবাসীর গণপ্রহারে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৩ চোর

সাগর দেব, তেলিয়ামুড়া, ২০ জুন || কল্যাণপুর থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় দীর্ঘদিন ধরেই গরু চোরের তাণ্ডব চলছে। একটা অংশের মানুষ গরু চোরের আতংকে দিন গুজরান করছে বলা চলে।
রবিবার ভোরের আলো ফোটার আগেই কল্যাণপুর এবং মুংগিয়াকামি থানাধীন উত্তর মহারানীপুর এডিসি এলাকায় একদল গরু চোরের দল হানা দিলে এলাকাবাসীরা তাদেরকে সংঘবদ্ধভাবে আটক করে। এরপর শুরু হয় গণপ্রহার। এই ঘটনার খবর পেয়ে কল্যাণপুর থেকে অগ্নিনির্বাপক দফতরের কর্মীরা ছুটে গিয়ে রক্তাক্ত এবং আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সোনামুড়া রবীন্দ্রনগরের ৩০ বছরের বিল্লাল মিয়া এবং সোনামুড়া রাঙ্গামাটিয়ার ২৮ বছরের জাহিদ হোসেনকে। অন্যদিকে একই ঘটনায় অপর অভিযূক্ত ১৮ বছরের সাইফুল ইসলাম গণপ্রহারে বর্তমানে মুঙ্গিয়াকামি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
এই ঘটনার খবর পেয়ে তেলিয়ামুড়া মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সোনা চরণ জমাতিয়ার নেতৃত্বে কল্যাণপুর এবং মুঙ্গিয়াকামি থানার বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। এই ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল, যদিও পুলিশি হস্তক্ষেপে বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।
ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে পুলিশ জানিয়েছেন, চোরের দল টি আর ০১ এ এল ১৬৬২ নম্বরের গাড়ি দিয়ে গরু চুরি করে পালানোর সময় মহারানীপুর এলাকায় গ্রামবাসীরা তাদের আটক করলে, অবস্থা বেগতিক বুঝে গাড়ি ফেলে পালাতে গেলে স্থানীয়রা তাদের ধরে এবং উত্তম-মধ্যম দেয়।
এদিনের এই ঘটনা আবারো প্রমাণ করলো কল্যাণপুরের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে পুলিশি ব্যবস্থাকে ফাঁকি দিয়ে গরু চোরের দল তাদের অবৈধ সাম্রাজ্য বজায় রেখে চলেছে। এলাকাবাসীর দাবি পুলিশ এ ব্যাপারে সদর্থক ভূমিকা গ্রহণ করুক।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*