নয়াদিল্লির ঐতিহাসিক ‘রাজপথে’ প্রজাতন্ত্র দিবসের বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান

Pic : REUTERS

Pic : REUTERS

নয়াদিল্লি, ২৬ জানুয়ারী ।। সোমবার সকালে নয়াদিল্লির ঐতিহাসিক ‘রাজপথে’ শুরু হয়েছে প্রজাতন্ত্র দিবসের বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান। আর স্থাপিত মঞ্চে প্রধান অতিথির আসন নিয়ে এ মনোমুগ্ধকর কুচকাওয়াজ উপভোগ করছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। সাথে আছেন ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা।
৬৬তম প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে অংশ নিয়েছেন ওবামা। ভারতের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যমে সরাসরি প্রচারিত হতে থাকা অনুষ্ঠানে মোদীর পাশে বসে বর্ণাঢ্য পরিবেশনা উপভোগ করছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সকাল সাড়ে ১০টার পর শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত আছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জিসহ মোদী সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

dlhiসংবাদ মাধ্যমগুলো বলছে, প্রজাতন্ত্র দিবসের এ বর্ণাঢ্য পরিবেশনা ও সামরিক বাহিনীর কুচকাওয়াজের পাশাপাশি নানা অনুষ্ঠানও উপভোগ করবেন ওবামা।
প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে প্রতিবারই কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয় দিল্লিতে। তবে ওবামার উপস্থিতির কারণে এবার অতীতের সব রেকর্ড ভেঙেছে নিরাপত্তার বাড়াবাড়ি।
রাজধানীকে মুড়িয়ে দেয়া হয়েছে সাত স্তর নিরাপত্তার ঘেরাটোপে। রাজপথে মূল অনুষ্ঠানস্থল ঘিরে মোতায়েন করা হয়েছে ৫০ হাজার নিরাপত্তা রক্ষী। এছাড়া শুধু মার্কিন প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তায় থাকছে ৫শ’ সিক্রেট সার্ভিস এজেন্ট।

obaএ বছরের প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে ভারতীয় সামরিক বাহিনী তাদের মধ্যমপাল্লার অত্যাধুনিক ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ‘আকাশ’ বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র এবং অস্ত্র শনাক্তকারী রাডার প্রদর্শন করবে। এছাড়া প্রদর্শন করা হবে অত্যাধুনিক মিগ ২৯-কে জঙ্গিবিমানও।
তবে এবারের কুচকাওয়াজের মূল আকর্ষণ সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর তিনটি বিশেষ কন্টিনজেন্ট। কন্টিনজেন্ট তিনটির সব সদস্যই হবে নারী। এই প্যারেডের থিম ধরা হয়েছে ‘নারী শক্তি’। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও’ ক্যাম্পেইনকেও তুলে আনা হবে কুচকাওয়াজের অনুষ্ঠানে।
প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানের পর কংগ্রেস সভানত্রী সোনিয়া গান্ধী, তার পুত্র কংগ্রেস সহসভাপতি রাহুল গান্ধী এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সঙ্গে দেখা করবেন ওবামা।

এদিকে রোববার সফরের প্রথম দিনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও প্রেসিডেন্ট ওবামার মধ্যে বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে থেমে থাকা বিভিন্ন চুক্তির বিষয়ে দৃশ্যমান অগ্রগতি হয়েছে। ইতোমধ্যেই বহুল প্রতীক্ষিত পরমাণু চুক্তি হওয়ার ব্যাপারেও দু্ই দেশের মধ্যে সমঝোতা হয়েছে যা ঝুলে ছিলো প্রায় ছয় বছর।
রোববার ভারত পৌঁছান মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। রোববার সকালে দিল্লির পালাম বিমাবন্দরে তাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*