যেসব বাদশাহী কাণ্ডের জন্য শাহরুখের ভক্ত ওবামা

srkতারায়-তারায় ডেস্ক ।। ওবামা যেন ঝড় রেখে গেলেন বলিউডে। এর প্রভাব শুধু বলিউড নয় ভক্তদের মাঝেও দারুণভাবে পড়েছে। ওবামার এ ঝড়ের নেপথ্যে কি রয়েছে বেরিয়ে আসছে সে সব তথ্যও।
ভারত সফরের বিদায়ী বক্তব্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার মুখে ‘দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে যায়েঙ্গে’র সংলাপ শোনার পর থেকেই শোরগোল চলছে ভারত জুড়েই। ওবামার শাহরুখ প্রেমের কারন হিসাবে কাজ করেছে মূলত শাহরুখের স্পেশালিটিই।
যেসব বাদশাহী কাণ্ডের জন্য শাহরুখের ভক্ত ওবামা তা নিচে উল্লেখ করা হলো।

১) শাহরুখই হলেন একমাত্র খান, যার সিনেমায় দেখা গেছে ওবামাকে। ২০১০ সালে তার অভিনীত সিনেমা ‘মাই নেম ইজ খান’-এর শেষ দৃশ্যে দেখানো হয় নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ওবামাকে।
যিনি ওই সিনেমায় শাহরুখের চরিত্র রিজওয়ান খানকে উদ্দেশ্য করে বলেন “হিজ নেম ইজ খান, অ্যান্ড হি ইজ নট আ টেররিস্ট”। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেক্ষাপটে বর্ণবৈষম্য এবং সন্ত্রাসবাদবিরোধী বার্তা বহনকারী সিনেমাটি নিঃসন্দেহেই ছাপ ফেলেছে মার্কিনিদের মনে।

২) কেবল অভিনয়ই নয়, ব্যবসাটাও ভালোই বোঝেন শাহরুখ। তার সর্বশেষ সিনেমা ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’-এর মুক্তির আগ দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পাঁচটি শহর – হিউস্টন, নিউজার্সি, শিকাগো, ওয়াশিংটন ডিসি এবং সান হোসেতে স্ল্যাম টুরের আয়োজন করেছিলেন তিনি।
যা ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। কেবল নিউজার্সিতেই শাহরুখের এই আয়োজনে দর্শক হয়েছিল ২০ হাজারের বেশি।

৩) অনেকেই হয়তো জানেন না, কেবল ভারতে নয়, পুরো বিশ্বেই অভিনয়শিল্পীদের মধ্যে দ্বিতীয় শীর্ষ ধনী হলেন শাহরুখ খান। হলিউডি তারকা টম ক্রুজ, টম হ্যাঙ্কস, ক্লিন্ট ইস্টউড, অ্যাডাম স্যান্ডলারের থেকেও শাহরুখের সম্পদের পরিমাণ অনেক বেশি।
শাহরুখের মোট সম্পদের মূল্যমান ৬০ কোটি ডলারেরও বেশি। যার কারণে নামী দামি অনেক মার্কিন তারকার থেকেও শাহরুখের খ্যাতির পরিসর অনেক বেশি।

৪) শাহরুখের খ্যাতির কাছে হলিউডিদেরও হার মেনে যাবার আরেকটা কারণ হতে পারে এই অভিনেতার মার্কিন বিনোদন জগতের প্রতি আকৃষ্ট না হওয়া। এমনকী অতীতে শাহরুখকে বেশ কয়েকবার বলতে শোনা গেছে, হিন্দি সিনেজগতকে আরও বেশি সমীহের চোখে দেখা উচিৎ হলিউডের।
একবার এক সাক্ষাৎকারে শাহরুখ বলেছিলেন, “আপনি কখনোই বাইরের দুনিয়ার বড় কোন ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে গিয়ে বলতে পারেন না, এমন একটি সিনেমা তৈরি করুন যার কেন্দ্রীয় চরিত্রে থাকবেন একজন ৪৭ বছর বয়সী, যার বর্ণ বাদামী রঙের, চুল কাল আর যে কিছুটা নাচতেও পারে। চরিত্রটাই এমন হওয়া উচিৎ যাতে করে ভারতীয়রা গর্ব অনুভব করতে পারে। –ইন্টারনেট

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*