পিছন থেকে ছুরি মেরেছে : মোদি

mdজাতীয় ডেস্ক ।। পিছন থেকে ছুরি মেরেছে, আপকে ফের ভোট দেওয়ার ‘ভুল’ করবেন না, এভাবেই আমআদমি পার্টিকে (আপ) কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন নরেন্দ্র মোদি। তাদের ‘পিছন থেকে ছুরি মারার দল’ বললেন তিনি। দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে শনিবার জনসভার ভাষণে রাজধানীর বাসিন্দাদের অরবিন্দ কেজরিবালের দলকে ফের ভোট দেওয়ার ‘ভুল’ না করার ডাক দিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।
মোদির পাশাপাশি বিজেপি সভাপতি অমিত শাহও ওই জনসভায় আপ-কে তোপ দেগে বলেন, দিল্লিবাসী যেন ‘ধরনার সরকার’কে বেছে না নেন। কেননা তাহলে কেন্দ্র রাজধানীর উন্নতি করতে পারবে না। মোদীজী যদি দিল্লি শহরের চেহারা বদলে দিতে চান, তাহলে তাকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। ধরনার সরকারকে ক্ষমতায় বসালে হবে না।
২০১৩-র ভোটে বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি দিল্লিতে। এবার দিল্লি বিধানসভাকে পাখির চোখ করেছেন মোদিরা। সেই লক্ষ্যে এদিন ভারতের প্রধানমন্ত্রী আশ্বাস দেন, তার দল দিল্লিতে সরকার চালানোর সুযোগ পেলে এমন পরিচ্ছন্ন, স্থায়ী প্রশাসন উপহার দেবে, যা অতীতে কোনওদিন দেখা যায়নি। পূর্ব দিল্লির বিশ্বাসনগরের জনসভায় তিনি সরাসরি আপের নাম না করে লোকসভা নির্বাচনে তাদের পারফরম্যান্স নিয়ে কটাক্ষ করে বলেন, ওরা জামানত বাজেয়াপ্ত হওয়ার বিশ্ব রেকর্ড গড়েছে!
এ প্রসঙ্গে মোদির বক্তব্য, যে লোকগুলিকে আপনারা শেষ বার ভোট দিলে ক্ষমতায় আনলেন, ওরা আপনাদেরই পিছন থেকে ছুরি মেরেছে।আপনাদের স্বপ্ন চুরমার করে দিল্লিকে ধ্বংস করেছে।লোকসভা ভোটে আপনারা এজন্য ওদের সমুচিত জবাবও দিয়েছেন।মানুষ তো এক ভুল বারবার করে না!
দিল্লি ভারতের মুখ, এই মন্তব্য করে মোদি দাবি করেন, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ভারতকে কী চোখে দেখা হবে, সেটা এই ভোটেই নির্ধারিত হবে।ভারতের পরিচিত করাতে দিল্লির থেকে আর কোনও ভাল জায়গা নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
কিরণ বেদীকে দলের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করায় নানা মহল, এমনকী বিজেপিতেও প্রশ্ন উঠলেও মোদি তার প্রশাসনিক দক্ষতা, অভিজ্ঞতার উল্লেখ করে তার ভূয়সী প্রশংসা করেন। পাশাপাশি নাম না করে কেজরিবালকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি মোদী। আপ নেতার উদ্দেশ্যে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেওয়ার প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেন, মানুষকে বোকা বানিয়ে আপনি বারবার সফল হতে পারবেন না!
ভারতের প্রধানমন্ত্রী বিজেপিকে পূর্ণ সংখ্যাগরিষ্ঠতা দেওয়ার ডাক দিয়ে বলেন, এমন এক সরকার চাই । যার সঙ্গে তিনি কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে পারবেন।
দিল্লির যে মধ্যবিত্ত, গরিব ভোটাররা আপের সমর্থনের মূল ভিত্তি, তাদের কাছে টানার চেষ্টায় মোদি দাবি করেন, কেন্দ্রে তার সরকার ইতিমধ্যেই দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধকালীন ভিত্তিতে অভিযানে নেমেছে। বস্তির উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি বলেন, আমার সরকার গরিবদের জন্য। ২০২২ সালের মধ্যে দিল্লির সব বস্তিতে যাতে পাকা বাড়ি তৈরি করা যায়, বস্তিই আর না থাকে, সেটাই আমার প্ল্যান। সেবছর দেশের স্বাধীনতার ৭৫-তম বর্ষপূর্তি। দিল্লি থেকেই এই অভিযানের শুরু হবে। 

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*