এক গৃহবধূকে ধর্ষনের চেষ্টা ও আপত্তিকর ভিডিও বানিয়ে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেবার অভিযোগ

বিশ্বেশ্বর মজুমদার, শান্তিরবাজার, ০৭ ডিসেম্বর || গৃহবধূকে ধর্ষন করার চেষ্টা ও পরবর্তী সময় গৃহবধূর আপত্তিকর কিছু ভিডিও তুলে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেবার অভিযোগ। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, শান্তিরবাজার মহকুমার অন্তর্গত রাজাপুর মহানন্দ বৈষ্ণব পাড়ার এক গৃহবধূ পেশায় চালের ব্যবসা করেন। তিনি মহকুমার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে চাল সংগ্রহ করে বিক্রি করেন। গৃহবধু উপজাতি সম্প্রদায় ভূক্ত। বুধবার গৃহবধূ সংবাদমাধ্যমের সন্মুখিন হয়ে উনার সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনা সম্পর্কে বক্তব্য তুলে ধরেন। গৃহবধূ জানান, তিনি বিলোনিয়া মহকুমার রাখীরাম পাড়ায় কাহান্তি ত্রিপুরার বসভবনে যান চাল সংগ্রহ করতে। সেখানে যাবার পর উনার পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, চাল নায্যমূল্যের দোকান থেকে উঠানো সম্ভব হয়নি। একরাত্র থেকে পরেরদিন চাল নিয়ে যেতে। গৃহবধূ এতে রাজি হয়ে রাত্রি বেলায় খাওয়া শেরে ঘুমিয়ে পরে। পরবর্তী সময় রাত্রিবেলায় বাহাদুর পাড়ার বাসিন্দা সঞ্জীত ত্রিপুরা, রাখীরাম পাড়ার বাসিন্দা রিয়াজ ত্রিপুরা গৃহবধূকে ধর্ষনের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। গৃহবধূর চিৎকার চেচামেচি শুনে এলাকার লোকজন জরো হোওয়ায় রক্ষাপায় গূহবধূ। এই কয়েক জন যুবক গৃহবধূকে ধর্ষনের পাশাপাশি গূহবধূর কিছু আপত্তিকর ভিডিও রেকর্ড করে। পরবর্তী সময় এই ভিডিওগুলো দিয়ে শান্তিরবাজার মহকুমার মুড়াসিং পাড়ার বাসিন্দা শান্তিকুমার মুড়াসিং গৃহবধূকে ব্লকে মেইল করার চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। শান্তি কুমার মুড়াসিং এর কথা মতো গৃহবধূ টাকা প্রদান না করায় গৃহবধূর আপত্তিকর ভিডিওগুলি সামাজিক মাধ্যমে ছরিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এইনিয়ে গৃহবধূ মঙ্গলবার বিলোনিয়া মহিলা থানায় এক লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তিনি সুষ্ঠ বিচারের আশায় বুধবার নিজ বাসভবনে সংবাদমাধ্যমের দারস্ত হন। এখন দেখার বিষয় ঘটনার সুষ্ঠ তদন্তে ও ঘটনার সাথে জরিতদের শাস্তি প্রদানে প্রসাশন কি প্রকার পদক্ষেপ গ্রহণ করে।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*