বহু প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে বাংলাদেশের গঙ্গাসাগর থেকে আগরতলার নিশ্চিন্তপুর আসলো পণ্যবাহী ট্রেন

আপডেট প্রতিনিধি, আগরতলা, ৩০ অক্টোবর || বহু প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে সোমবার বাংলাদেশের গঙ্গাসাগর রেল স্টেশন থেকে আগরতলার নিশ্চিন্তপুর রেল স্টেশন পর্যন্ত পরীক্ষামূলকভাবে চলেছে পণ্যবাহী ট্রেন। এদিন দুপুর ১২টা ৩০ মিনিট নাগাদ ৪টি বগি নিয়ে পণ্যবাহী এই ট্রেনটি ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে এসে পৌছেছে। এদিন গঙ্গাসাগর স্টেশন থেকে নিশ্চিন্তপুর পর্যন্ত ওই ট্রেন ৮.১ কিমি পথ অতিক্রম করেছে। আগরতলা-আখাউড়া রেল প্রকল্পে ভারতের অংশে ৮৬২.৫ কোটি টাকা খরচ হয়েছে। প্রকল্পের কাজ সম্পূর্ণভাবে সমাপ্ত হতে খরচ আরও কিছুটা বাড়তে পারে। এদিন এই ঐতিহাসিক মুহুর্তের সাক্ষী থাকতে স্থানীয় বহু মানুষ দু’দেশের সীমান্তে এবং নিশ্চিন্তপুর স্টেশনে দাড়িয়ে ছিলেন।
এই প্রকল্পের এক্সিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার গুনীন চৌধুরী জানিয়েছেন, খুব সম্ভবত আগামী ১লা নভেম্বর ভারত ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়ালি উপস্থিতি থেকে আগরতলা-আখাউড়া রেল প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। অবশ্য, আপাতত দুই দেশের মধ্যে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল করবে। যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা শুরু হতে আরও কিছুটা সময়ের প্রয়োজন রয়েছে। তিনি বলেন, আপাতত মিটার গেজে পণ্যবাহী ট্রেন চলবে। ভারতের অংশে ব্রডগেজের কাজ সমাপ্ত হতে আরও ১ থেকে ২ মাস সময়ের প্রয়োজন রয়েছে।
উল্লেখ্য, ২০১০ সালে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে আগরতলা-আখাউড়া রেল প্রকল্পের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল। ২০১৮ সালের ১০ই সেপ্টেম্বর প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন হয়েছিল। কিন্তু, মাঝে সারা বিশ্বে করোনার প্রকোপের প্রভাব এই প্রকল্পেও পড়েছে। করোনার জেরে রেল লাইন নির্মাণ কাজে বিলম্ব হয়েছে। এই প্রকল্পের মোট দৈর্ঘ্য ১২.২৪ কিমি। তাতে, ভারতের অংশে ৫.৪৬ কিমি এবং বাংলাদেশের অংশে ৬.৭৮ কিমি রেলপথ রয়েছে।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*