ডিসিএম কতৃক শারীরিকভাবে নিগৃহীত হয়ে মহকুমাশাসক অফিসে মুহুড়িদের কর্ম বিরতি

সাগর দেব, তেলিয়ামুড়া, ০১ ডিসেম্বর || তেলিয়ামুড়া মহকুমা শাসকের কক্ষে ডিসিএম দ্বারা শারীরিকভাবে নিগৃহীত হয়ে তেলিয়ামুড়া মহকুমা শাসক কার্যালয়ের বিভিন্ন স্তরের মুহুড়িরা সম্মিলিতভাবে কর্ম বিরতিতে সামিল হয়েছেন। যার ফলে স্বাভাবিকভাবেই মহকুমার বিভিন্ন জায়গার সাধারণ মানুষরা মহকুমা অফিসে এসে দিনভর ভোগান্তির শিকার হয়েছেন। শেষ সংবাদ প্রেরণ পর্যন্ত মুহুড়িরা নিজেদের সিদ্ধান্তে অনর।
ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ সংগ্রহ করলে বিভিন্ন মহলের অভিযোগ মূলে জানা যায়, বৃহস্পতিবার তেলিয়ামুড়া মহকুমা শাসকের অফিসের মহকুমা শাসকের কক্ষে মহকুমা শাসক অভিজিৎ চক্রবর্তীর উপস্থিতি’তে বাহুবলি এবং বিভিন্ন কারণে বারবার সংবাদ শিরোনামে উঠে আসা ডি.সি.এম সৌরভ দাস কোন একটা বিষয়কে কেন্দ্র করে সোম কুমার বিশ্বাস নামের এক মুহুড়ির উপর চড়াও হয় এবং তাকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ সহ অপমান অপদস্থ করার পাশাপাশি মহকুমা শাসকের উপস্থিতিতে মহকুমা শাসকের কক্ষে ডিসিএম সৌরভ দাস হিতাহিত জ্ঞান ভুলে সংশ্লিষ্ট মুহুড়ির পুরুষাঙ্গে নির্মমভাবে আঘাত করা সহ ছাপার অযোগ্য ভাষায় গালিগালাজ করে নিজের নিম্ন রুচির পরিচয় দিয়েছেন বলেও অভিযোগ। পেটের দায়ে এবং বেকারত্বের জ্বালায় মুহুড়ির কাজ করতে বাধ্য সংশ্লিষ্ট মুহুরী গোটা ঘটনা মহকুমা শাসকের কার্যালয় চত্বরের অন্যান্য মুহুড়িদের জানালে সবাই ক্ষোভে ফেটে পড়েন। অবশেষে শুক্রবার সংশ্লিষ্ট ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে এবং জেলা প্রশাসনের দৃষ্টিতে বিষয়টা নিয়ে যাওয়ার অভিপ্রায় নিয়ে তেলিয়ামুড়া মহকুমা প্রশাসন কার্যালয়ের সাথে যুক্ত মুহুড়িরা কর্মবিরতি শুরু করেন।
আরো চাঞ্চল্যকর অভিযোগ হচ্ছে গোটা ঘটনাটা মহকুমা শাসকের কক্ষে মহকুমা শাসকের উপস্থিতিতে সংঘটিত হলেও মহকুমা শাসক অভিজিৎ চক্রবর্তী কোন প্রকারের ব্যবস্থা গ্রহণ না করে পরোক্ষে সৌরভ দাসকে ইন্দন যুগিয়েছেন বলে অভিযোগ। এদিকে নির্যাতনের শিকার মুহুড়ি সোম কুমার বিশ্বাসের পক্ষ হয়ে অন্যান্য মুহুরীরা সম্মিলিত ভাবে মহকুমা শাসকের সাথে দেখা করলে অভিজিৎ চক্রবর্তী গোটা ঘটনাটাকে এক প্রকার ধামাচাপা দেওয়ার প্রয়াস গ্রহণ করেন বলেও খবর তেলিয়ামুড়া মহকুমা শাসকের কার্যালয় সূত্রে।
এদিকে গোটা ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয় মুহুড়িদের তরফ থেকে দাবি করা হয় যতক্ষণ পর্যন্ত না ডিসিএম সৌরভ দাসের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ততক্ষণ পর্যন্ত তাদের এই আন্দোলন বা কর্মবিরতি অব্যাহত থাকবে। একটা অংশ থেকে অভিযোগ উঠে আসছে সৌরভ দাস তেলিয়ামুড়াতে আসার আগে রাজ্যের অন্য একটি জায়গায় দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে জমি কেলেঙ্কারির মত ঘটনার সাথেও জড়িত হয়ে গিয়েছিলেন।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*