নাক ডাকা বন্ধে টিপস

nakস্বাস্থ্য ও সচেতনতা ডেস্ক ।। ঘুমাতে যাওয়ার ২ ঘণ্টা আগে রাতের খাবার খেয়ে নিন। এতে জেগে থাকা অবস্থায় খাবার হজম হয়ে যাবে। ফলে নাক ডাকার শব্দও হবে না।ঘুমের মধ্যে যারা নাক ডাকেন তারা হয়তো টের পান না। তবে আশেপাশে যারা থাকেন তারাই জানেন নাক ডাকার শব্দ কতটা যন্ত্রণাদায়ক।
নানা কারণেই এ সমস্যাটি দেখা দিতে পারে। ঘুমের মধ্যে শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা, গলার চারপাশে অতিরিক্ত চর্বি জমা, গলার পেশির নমনীয়তা কম যাওয়া কিংবা জন্মগত ত্রুটির কারণে ঘুমের মধ্যে নাক ডাকার শব্দ হতে পারে। এ ছাড়া চিত হয়ে ঘুমালেও নাক ডাকার শব্দ হয়।
তবে কিছু টিপস মেনে চললেই সহজেই এই বিদঘুটে সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। চিত হয়ে কিংবা উপুড় হয়ে না ঘুমিয়ে কাত হয়ে ঘুমানো। শরীরের বেশি ওজনের কারণে গলার পথ সরু হয়ে যাওয়ার কারণেও অনেক সময় নাক ডাকার কারণ হতে পারে।
তাই যতটা সম্ভব শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন। ঘুমাতে যাওয়ার আগে অ্যালকোহল কিংবা নেশাজাতীয় দ্রব্য পরিহার করুন। মাথার নিচে কয়েকটি বালিশ দিয়েও নাক ডাকা বন্ধ করতে পারেন। মাথার নিচে বালিশ দিলে বুকের চেয়ে মাথা বেশি উঁচুতে থাকবে।
এতে করে নাক ডাকা বন্ধ হবে। ব্যায়াম করলে পেশিগুলো শক্ত হয়, রক্তের চলাচল ও হৃদপিণ্ডের স্পন্দন বাড়ে। ফলে ঘুমের সময় নাক ডাকা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। তাই নাক ডাকা বন্ধ করতে প্রত্যেকদিন ৩০ মিনিট করে ব্যায়াম করুন।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*