ত্রিপুরেশ্বরী মাতাবাড়ি থেকে বাড়ি ফিরতে মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনা নব দাম্পতির, শেষবারের মতো স্ত্রীকে দেখে কান্নায় ভেঙ্গে পড়লেন আহত স্বামী

আপডেট প্রতিনিধি, আগরতলা, ১৯ ফেব্রুয়ারী || বিয়ের মাত্র ৭ দিনের মাথায় নতুন দম্পতির জীবনে নেমে আসে অমাবস্যা। ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস, কিছু দিন আগে সাত পাকে বাঁধা পেরেছিল দেবাদ্রিতা চৌধুরী এবং আদিত্য সাহা। দুজনই ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার। বিয়ের ৭ দিনের মাথায় ঘটে গেল এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা।
জানা যায়, রবিবার মাতা ত্রিপুরা সুন্দরী মায়ের দর্শন শেষে আগরতলায় বাড়ি ফেরার পথে বাগমা এলাকায় তাদের গাড়ির সাথে অন্য অপর একটি গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। দুর্ঘটনায় নব গৃহবধূ ও তার স্বামী আটকে পড়ে গাড়িতে। স্থানীয়রা ছুটে এসে তড়িঘড়ি গাড়ির দরজা ভেঙে তাদের বের করে হাসপাতাল নিয়ে যায়। মর্মান্তিক এই পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় দেবাদ্রিতা চৌধুরীর (সাহা)। ঘটনায় গুরুতর আহত হয় মৃতার স্বামী আদিত্য সাহা সহ আরও ৪ জন। সোমবার ময়নাতদন্তের পর দেবাদ্রিতার মৃতদেহ উদয়পুর থেকে আগরতলা নিয়ে আসা হয়। জিবি হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে স্বামীকে শেষবারের মতো স্ত্রীকে দেখানোর সুযোগ করে দিলেন আত্মীয় পরিজনরা। শেষবারের মত ভালবাসার মানুষটাকে দেখে কান্নায় ভেঙ্গে পড়লেন আহত স্বামী। বাকরুদ্ধ দুই পরিবার। শেষ বিদায় জানিয়ে শোকস্তব্ধ হয়ে পড়ে সকলে।
জানা যায়, নিহত দেবাদ্রিতার বাবার বাড়ি রাজধানীর রামনগর এলাকায়। আর আহত স্বামী আদিত্য’র বাড়ি আগরতলা সূর্য চৌমুহনী এলাকায়।
উদয়পুরে হৃদয়বিদারক দুর্ঘটনায় আহত আদিত্য সাহাকে জিবি হাসপাতালে দেখতে যান কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক। তিনি পরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, বিয়ের মাত্র ৭ দিনের মাথায় আদিত্য এই দুর্ঘটনায় তার স্ত্রীকে হারায়। ঈশ্বর এই সময়ে তকে শক্তি দিক এই কঠিন সময় কাটিয়ে সুস্থ হওয়ার।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*