চাকুরীচ‍্যুত ১০,৩২৩ শিক্ষক পরিবারগুলোর মঙ্গলার্থে বিশেষ যজ্ঞানুষ্ঠানের আয়োজন ত্রিপুরেশ্বরী দেবী’র মন্দিরে

গোপাল সিং, খোয়াই, ১৬ অক্টোবর || বুধবার মহা অষ্টমী লগ্নের পূণ্য তিথিতে ১০,৩২৩ ভিক্টিমাইজড শিক্ষক পরিবারের পক্ষ থেকে গোটা রাজ‍্যের চাকুরীচ‍্যুত শিক্ষক পরিবারগুলোর মঙ্গলার্থে ৫১ পীঠের অন‍্যতম উদয়পুরস্থিত ‘মাতা ত্রিপুরেশ্বরী দেবী’র মন্দিরে এক বিশেষ যজ্ঞানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। উক্ত যজ্ঞানুষ্ঠানের মধ‍্য দিয়ে গোটা রাজ‍্যের ১০,৩২৩ চাকুরীচ‍্যুত শিক্ষক পরিবারগুলোর অর্জিত অধিকার ফিরে পাওয়ার জন‍্য মায়ের কাছে প্রার্থনা করলেন সংগঠনের রাজ্য সভাপতি প্রদীপ বণিক। এদিন মুলত মহাযজ্ঞানুষ্ঠনই ছিল প্রধান গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। প্রদীপ বাবু ১০,৩২৩ ভিক্টিমাইজ সংগঠনের পক্ষ থেকে এই যজ্ঞানুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রাজ্য সরকারকে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে একটা বার্তা দিয়ে রাখলেন। বিগত নির্বাচনের প্রাককালে ২০১৭ সাল থেকে প্রদীপ বাবু এবং উনার সংগঠন বর্তমান সরকারটাকে প্রতিষ্ঠিত করতে জীবনঝুঁকি নিয়ে কাজ করেছিলেন। কারন ১০,৩২৩ শিক্ষক সমাজ ভেবেছিলো রাজ্যে এই সরকারটাকে প্রতিষ্ঠিত করলে উনারা একটা ন্যায় পাবেন। ১০,৩২৩ ইস্যুতে রাজ্য সরকার তথা বর্তমান মুখ্যমন্ত্রীর পক্ষ থেকে একটা যুগান্তকারী ক্যাবিনেট সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় প্রহর গুনছে ১০,৩২৩ চাকুরীচ্যুত শিক্ষক সমাজ। যত দিন এগুচ্ছে ততই ১০,৩২৩ শিক্ষক সমাজের মধ্যে সরকারের একটা সদর্থক ভূমিকা বা পদক্ষেপের আশা বাড়ছে। কেননা গত নির্বাচনের অন্যতম ইস্যু ছিল ১০,৩২৩। কিন্তু ১০,৩২৩ শিক্ষক সমাজের চোখের সামনে দিয়ে ৯৬২ বিজ্ঞান শিক্ষক এবং সমগ্র শিক্ষা অভিযানের শিক্ষকদের জন্য ন্যায় করেছে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার। তাই যেভাবে আইন ও সংবিধান মেনে তাদেরকে সরকার রক্ষা করেছে, ঠিক একইভাবে ১০,৩২৩ জন শিক্ষক-শিক্ষিকাদেরও যেন সরকার রক্ষা করেন সেই দাবীই মুলত তুললেন ১০,৩২৩ ভিক্টিমাইজ সংগঠনের রাজ্য সভাপতি প্রদীপ বণিক। তিনি এদিনকার মহাযজ্ঞানুষ্ঠানের স্থান থেকেই প্রশ্ন তুললেন, সরকার আমাদের ১০,৩২৩ এর প্রতি সহানুভূতিশীল তবে ১৯ মাস হয়েছে আমরা চাকুরীচ্যুত। তাই সরকারের আর কতটা সময় লাগবে বা আমরা আর কতটা সময় ধৈর্য্য সহকারে থাকবো? পাশাপাশি প্রদীপ বাবু বুঝিয়ে দিলেন উনি কিংবা উনার সংগঠনের বর্তমান সরকারের উপর পূর্ণ আস্থা রয়েছে। তাই তিনি রাজ্য সরকারের নিকট অনুরোধ করেন যেন ১০,৩২৩ এর মতো সংবেদনশীল বিষয়কে যেন আর দীর্ঘায়িত করা না হয়। প্রদীপ বাবু ত্রিপুরেশ্বরী দেবীর নিকট প্রার্থনা করেছেন, ২০১২ বিজ্ঞান শিক্ষক ও সমগ্রশিক্ষার শিক্ষকদের চাকুরী যেমন বহাল রয়েছে, ঠিক তেমনি ১০,৩২৩ এর বেলায় যেন তাই ঘটে।
এদিনকার যজ্ঞানুষ্ঠানের শেষে অন্নভোগ গ্রহন করেন ১০,৩২৩ এর শিক্ষকগণ। এদিন ভিক্টিমাইজড সংগঠনের রাজ্য সভাপতি প্রদীপ বণিক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন রাজ্য সম্পাদক অরবিন্দ শর্মা। এছাড়া ১০,৩২৩ চাকুরীচ্যুত শিক্ষক-শিক্ষিকাদের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যনীয়। যজ্ঞানুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে যে ইতিবাচক বার্তা প্রদীপ বাবু তুলে ধরলেন, সেখান থেকে ১০,৩২৩ ক্ষতিগ্রস্থ শিক্ষক-শিক্ষিকাদের জীবনে একটা নতুন অধ্যায়ের সূচনা হতে যাচ্ছে কিনা তাই এখন প্রধান আলোচ্য বিষয়।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*