পাঞ্জা খানা ঘরে রাতের অন্ধকারে দুস্কৃতির হামলা, চাঞ্চল্য উত্তর কলমচৌড়ায়

আপডেট প্রতিনিধি, সোনামুড়া, ২৬ অক্টোবর || মুসলিম ধর্মানুলম্বীদের নামাজ আদায় করার পাঞ্জা খানা ঘরটি রাতের অন্ধকারে দুস্কৃতিরা কুপিয়ে টিন কেটে নষ্ট করেছে বলে অভিযোগ। উক্ত ঘরটি উত্তর কলমচৌড়া গ্রাম পঞ্চায়েত পার্টির নেতৃত্ব এবং কালী মন্দির কমিটির যৌথ উদ‍্যোগে পূনরায় সংস্কার করে নতুন টিন লাগিয়ে তৈরি করে দিয়েছে। উত্তর কলম চৌড়া গ্রামটিতে হিন্দু-মুসলীমদের বসবাস। উভয় সম্প্রদায় লোকের মধ্যে শান্তি সম্প্রতি বজায় রেখেই চার জন মুসলিম পঞ্চায়েত প্রতিনিধি ও সাত জন হিন্দু প্রতিনিধি মিলেমিশে সুন্দর ভাবে পঞ্চায়েতের কাজ কর্ম চালাচ্ছে। গত ২৪শে অক্টোবর রাতের আধারে সমাজ নষ্ট করার জন‍্য এবং উভয় জাতির মধ্যে হিংসাত্মক ঝগড়া বাঁধাতে চক্রান্তকারিরা পাঞ্জা খানা নামাজ আদায় ঘরটির টিনের বেড়া কুপিয়ে ফানা ফানা করে দিয়েছে। এই ঘটনায় খবরাখবর সকালবেলায় এলাকায় চাউর হতেই উভয়ই সম্প্রদায়ের মধ্যে চাঞ্চল্যের বিরাজ করছে, আবার অনেকেই আতঙ্কে ছিল যে কি না কি হয়। পঞ্চায়েত প্রধান সমস্থ ঘটনা জানিয়ে কলমচৌড়া থানার ওসি বিষ্ণুপদ ভৌমিককে বলেন ঘটনার সঙ্গে কে বা কাহারা জড়িত তা তদন্ত করে উপযুক্ত শাস্তির ব‍্যবস্থা করতে। ব্লক চেয়ারম্যান সঞ্জয় সরকার এবং বিশিষ্ট সমাজ সেবক দেবব্রত ভট্টাচার্য্য, এলাকার প্রধান সাবিএী দাস, উপপ্রধান আব্দুল হক ও কালী মন্দির কমিটির সম্পাদক মধু সুদন দাস সহ অন‍্যান‍্য মেম্বারগণ ঘটনা সরজমিনে তদন্ত করে ঘুরে দেখেন। তার পর উত্তর কলমচৌড়া কালী মন্দিরে উভয়ের মধ্যে শান্তি সম্প্রতি ও শৃঙ্খলা বজায় রেখে ভ্রাতৃত্তবোধ সম্পর্কের মধ্যে যাতে ফাটল না হয়, স‍ে দিকটাই বজায় রেখে চলতে হবে। পাঞ্জা খানা অঘটনের জের ধরে যাতে এলাকায় কনো রকম অশান্তি না হয় উভয় অংশের জনগণের নিকট আহবান করেন সমাজ সেবক দেবব্রত ভট্টাচার্য্য। পাশাপাশি আজকের মধ্যেই পাঞ্জা ঘর পূনরায় সংস্কার করে দেবে উত্তর কলমচৌড়া পঞ্চায়েত। উত্তর কলমচৌড়া এলাকারবাসী গ্রামের নেতৃত্বের প্রশংসা করে আগামী দিনগুলো যাতে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রেখে হাতে হাত মিলিয়ে এবং কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলতে পারে তারেই প্রার্থনা করছে।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*