সরকারি কর্মচারীদের ৫ শতাংশ মহার্ঘভাতা প্রদান এবং বিভিন্ন পদে নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত মন্ত্রীসভায়

আপডেট প্রতিনিধি, আগরতলা, ০৩ আগস্ট || রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য ৫ শতাংশ মহার্ঘভাতা প্রদানের ঘোষণা করলো রাজ্য মন্ত্রিসভা। মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহার পৌরহিত্যে রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে ৫ শতাংশমহার্ঘ ভাতা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে একথা জানান রাজ্যের তথ্যমন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী। তিনি বলেন, ১লা জুলাই থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকরী হবে। এতে প্রতিবছর রাজ্য সরকারের কোষাগার থেকে ৫২৩ কোটি টাকা ব্যয় হবে। শ্রী চৌধুরী বলেন,রাজ্যের সরকারি কর্মচারীদের পাশাপাশি পেনশনার, ফ্যামিলি পেনশনার্সরাও ৫ শতাংশ ডি আর পাবেন। এতে একটি বড় অংশ সরকারি কর্মচারী উপকৃত হবে বলে জানান তিনি।
পাশাপাশি এদিন তথ্যমন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী বলেন, মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিভিন্ন দপ্তরে বেশকিছু নিয়োগের সিদ্ধান্ত হয়েছে। পুর্ত দপ্তরে ২০০ জন জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ১০০ জন নেওয়া হবে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের থেকে এবং ১০০ পদ পূরণ করা হবে ডিগ্রী ইঞ্জিনিয়ারদের মধ্য থেকে। তথ্য-সংস্কৃতি দপ্তরের ষোলটি নতুন পদ পূরণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য মন্ত্রিসভা। এর মধ্যে সহকারি অধিকর্তার ৪টি পদ এবং এসআইও রয়েছে ৬ জন৷ স্বাস্থ্য দপ্তরে ১০০ জন স্টাফ নার্স নিয়োগ করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এছাড়াও সিদ্ধান্ত হয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তরে যারা গ্রুপ ডি কর্মী রয়েছে তাদের মধ্যে ২৫ জনকে পদোন্নতি দিয়ে গ্রুপ সি তে নিয়ে আসা হবে বলে জানান মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী।
মন্ত্রিসভার বৈঠকে এদিন ত্রিপুরা মেডিয়া ক্রিয়েশন গাইডলাইনের সংশোধনের প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে। রাজ্যে মোট ৩০০ জন সাংবাদিককে অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড প্রদান করা হবে। পুরনো রয়েছেন ১৭৮ জন। সব মিলিয়ে ৩০০ জনকে নতুন করে সরকারি স্বীকৃতি পত্র দেওয়া হবে বলে মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী জানিয়েছেন।
এদিন তথ্যমন্ত্রী জানান, রাজ্য গণবণ্টন ব্যবস্থার ঢেলে সাজানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এখন থেকে গণবণ্টন ব্যবস্থায় ২০০ গ্রাম করে সয়াবিনের প্যাকেট প্রতি মাসে দেওয়া হবে। পুজোর আগেই সেই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*