স্থানীয় ব্যাবসায়ীদের সহযোগিতায় বিপুল পরিমানে দেশী মদ উদ্ধার করলো পুলিশ

বিশ্বেশ্বর মজুমদার, শান্তিরবাজার, ২৪ নভেম্বর || মুখ্যমন্ত্রীর নেশামুক্ত ত্রিপুরা গড়ার ক্ষেত্রে বাঁধাদান করছে কিছু সংখ্যক নেশাকারাবারীর দল। এইসকল নেশাকারাবারীদের জন্য যুবসমাজ ধ্বংশের পথে। শান্তির বাজার মহকুমার লাউগাং বাজারে প্রত্যেক মঙ্গলবার সাপ্তাহিক হাঁট বসে। এই সাপ্তাহিক বাজারকে কেন্দ্র করে মহকুমার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ক্রেতা বিক্রতার সমাগম ঘটে। এই বাজারকে নষ্ট করার জন্য ও যুবসমাজকে নষ্ট করার জন্য কিছু সংখ্যক নেশাকারবারীরা নেশার রমরমা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ। এই সকল নেশায় আসক্ত হয়ে লোকজন বাজারে এসে পরিবারের জন্য কিছু না নিয়ে মদমত্ত হয়ে ঘরে ফিরে যায়। এইসকল নেশাকারবারীদের আটক করতে মঙ্গলবার রাত্রিবেলায় বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করে স্থানীয় ব্যাবসায়ীরা। স্থানীয় ব্যাবসায়ী ও শান্তির বাজার আরক্ষা প্রসাশনের উদ্দ্যোগে মঙ্গলবার রাত্রি বেলায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে প্রায় ১৫০ লিটার দেশী মদ উদ্ধার করা হয়। এইনিয়ে শান্তির বাজার থানার এস আই সঞ্জয় দেবর্বমা জানান, উনাদের এই ধরনের অভিযান আগামীদিনেও জারী থাকবে। তিনি জানান, নেশা সামগ্রী উদ্ধার করা হলেও নেশাকারবারীদের আটক করতে সক্ষম হয়নি। তবে একজন নেশাকারাবারীকে চিহ্নিত করতে পেরেছে বলে জানান পুলিশ। এই অভিযানে নেশায় আসক্ত একজন ব্যক্তিকে আটক করেছে শান্তির বাজার থানার পুলিশ। এই অভিযানে স্থানীয় ব্যাবসায়ীরা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়াতে উনাদেরকে আরক্ষা প্রসাশনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়।
সুত্রের খবর অনুযায়ী লাউগাং বাজারে দেশি মদের পাশাপাশি ব্রাউন সুগার সহ বিভিন্ন নেশা সামগ্রীর রমরমা ব্যাবসা চলছে। পুলিশ রাঘব বোয়ালদের খোঁজ না নিয়ে নাটকীয় অভিযান করে দেশী মদ আটক করছে বলে অভিযোগ লোকজনের।

FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*