মূর্তি ভাঙা নিয়ে রাজ্যগুলিকে সতর্কবার্তা দিল কেন্দ্র, কিছু ঘটলে দায়ী থাকবেন জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার

stachuজাতীয় ডেস্ক ৷৷ দেশের বিভিন্ন স্থানে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ও সমাজ সংস্কারকদের মূর্তি ভাঙার ঘটনার তীব্র নিন্দা করে রাজ্যগুলিকে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহের সঙ্গে কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এরপরেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সব রাজ্যকে এই ধরনের ঘটনা রোখার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছে। দোষীদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। কোথাও কিছু ঘটলে জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার দায়ী থাকবেন।’ সংসদের বাইরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ‘আমি সবার কাছে আবেদন জানাচ্ছি, এই ধরনের ঘটনার ক্ষেত্রে কড়া ব্যবস্থা নিতে হবে। এই ধরনের ঘটনার ক্ষেত্রে কোনও সাফাই থাকতে পারে না।’
মূর্তি ভাঙার শুরুটা হয়েছিল ত্রিপুরা দিয়ে। সেখানে বিধানসভা ভোটে বিজেপির জয়ের পর দু’দিনের মধ্যে লেনিনের দুটি মূর্তি ভেঙে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে। বিজেপি’র বেশ কয়েকজন নেতা কার্যত লেনিনের মূর্তি ভাঙার পক্ষে সাফাইও দেন। কিন্তু এই ঘটনার রেশ শুধু ত্রিপুরাতেই সীমাবদ্ধ থাকেনি। এক বিজেপি নেতার পোস্টের পর তামিলনাড়ুতে দ্রাবিড় আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা পেরিয়ারের মূর্তিতে ভাঙচুর চালানো হয়। কলকাতায় শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের মূর্তি ভেঙে কালি মাখানোর ঘটনাও ঘটেছে।
প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পাশাপাশি বিজেপি সভাপতি অমিত শাহও ত্রিপুরা ও তামিলনাড়ুতে মূর্তি ভাঙার বিরোধিতা করেছেন। তিনি এই ঘটনাগুলিকে দূর্ভাগ্যজনক আখ্যা দিয়ে বলেছেন, দল হিসেবে তাঁরা কারও মূর্তি ভেঙে ফেলাকে সমর্থন করেন না। তিনি বলেছেন, বিভিন্ন ধরনের ভাবাদর্শের সহাবস্থানে বিশ্বাসী বিজেপি। দেশের সংবিধান প্রণেতাদের আদর্শ ছিল এটাই। ভারতের বৈচিত্র্য ও বিতর্ক এবং আলোচনার সজীবতাই দেশকে শক্তিশালী করে তুলেছে। বিজেপি সভাপতি আরও বলেছেন, তিনি তামিলনাড়ু ও ত্রিপুরায় দলের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে কথা বলেছেন এবং দলের কেউ এ ধরনের ঘটনায় জড়িত থাকলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
FacebookTwitterGoogle+Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*